সুন্দরবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে:ফায়ার সার্ভিস পরিচালক 

মশিউর রহমান মাসুম ও মাসুদ রানা,

আপডেট : ০৩:৩৪ পিএম, সোমবার, ৬ মে ২০২৪ | ৯৩

পূর্ব সুন্দরবনের লতিফের সিলা এলাকায় লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। সোমবার বেলা ১০.৪০ টায় ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক অপারেশন ও মেইনটেনেন্স লে. কর্নেল তাজুল ইসলাম আনুষ্ঠানিকভাবে আগুন নিয়ন্ত্রণের কথা ঘোষণা করেন। তিনি বরেন, '১০.৩৫ টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে।
নৌবাহিনীর কর্মকর্তা কমান্ডার মো. বাশারুল ইসলাম, চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারি বন সংরক্ষক(এসিএফ) রানা দেব, মোরেলগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো৷ আশিকুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম তারেক সুলতান, থানার ওসি মোহাম্মদ সামসুদ্দীন, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম হাওলাদার এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক আরও বলেন, আগুন এখন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে। কোথাও আগুনোর ফুলকি বা ধোঁয়া নেই। তবে, ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আরও ২ দিন কাজ করবে কালো ছাই সাদা করার জন্যে। এর পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা বন ত্যাগ করবে।
তিনি বলেন, ১০.৩৫ টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। রবিবার থেকে টানা ৪৩ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিস, নৌবাহিনী, বনবিভাগ, বিমানবাহিনী ও স্থানীয় শতশত স্বেচ্ছাসেবক।
খুলনাঞ্চলের বন সংরক্ষণ মিহির কুমার দো জানান, 'আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ আনতে সোমবার (৬ মে) ভোর থেকে তৃতীয় দফায় কাজ শুরু করা হয়। এখন আর কোথাও আগুন এমনকি ধোয়াও বের হচ্ছে না। কাজেই আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আছে। তবে যেতেতু বনের আগুন তাই বনবিভাগের পক্ষ থেকে আরও দিন এই এলাকা পর্যবেক্ষণে রাখব'।
এর আগে সুন্দরবনের পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনতে তৃতীয় দিনের মতো সোমবার ভের থেকে বনবিভাগ, নৌবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা কাজ করেছপন। আর এ আগুন নেভানোর কাজে সহায়তা করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারাও।
সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জ সহকারী বনসংরক্ষক রানা দেব জানান, গতকাল রাত ১টা পর্যন্ত বনবিভাগ এককভাবে আগুন নিভাতে পাম্প মেশিন দিয়ে পানি স্পে করেছে। এর ফলে এখন আর কোথাও তেমন একটা আগুন দেখা যাচ্ছেনা। যেখানে ধোঁয়া দেখা যাচ্ছে সেখানেই পানি দেয়া হচ্ছে। নিয়ন্ত্রিত আগুন পুরোপুরো নেভাতে সোমবার সকাল ৭টা থেকে বনবিভাগকে সহায়তায় কাজ শুরু করেছেন নৌবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।
তিনি আরও বলেন, আগামী দুইদিন ধরে এ পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রেখে পানি ছিটানো হবে। তবে আপাতত আর ভয়ের কোন কারণ নেই। কারণ আগুন যাতে আর ছড়াতে না পারে সেজন্য রবিবার ফায়ার লাইন কেটে সেখানে পানি দিয়ে রাখা হচ্ছে। আর আগুনের অস্তিত্বের তেমন একটা নেই, শুধু কিছু কিছু জায়গায় ধোঁয়া রয়েছে।
গত শনিবার (৪মে) দুপুরে আমরবুনিয়া ফরেস্ট ক্যাম্পের অধীন লতিফের সিলা এলাকায় অগ্নিকান্ডের খবর পান বন বিভাগের কর্মকর্তারা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত