নৌকা প্রতীকের প্রচারণায় বাঁধা, দুইজনকে অর্থদন্ড

চিতলমারী প্রতিনিধি 

আপডেট : ০৯:২৪ পিএম, বুধবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২৩ | ৩৭২

চিতলমারীতে নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী প্রচারণায় বাঁধা দেওয়ার অপরাধে দুইজনকে অর্থদন্ডাদেশ দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক। বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) বিকেল ৪ টার দিকে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বেদবতী মিস্ত্রী এ অর্থদন্ডাদেশ দেন। অর্থদন্ডাদেশ প্রাপ্তরা হলেন উপজেলার সদর ইউনিয়নের পুরাতন কালশিরা গ্রামের মধুসূদন কির্ত্তুনীয়ার ছেলে বিবেক কির্ত্তুনীয়া (৬৫) ও আড়ুয়াবর্ণী চরপাড়া গ্রামের মোঃ মুজিবর খানের ছেলে আল আমিন খান (২৭)। এদেরমধ্যে আল আমিনের কাছ থেকে ২০০০ টাকা ও বিবেক কির্ত্তুনীয়ার কাছ থেকে ১০০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও সহকারি রিটার্নিং অফিসার মোঃ আসমত হোসেন এ সব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


জানা গেছে, বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের কালশিরা গ্রামের জনৈক বদর শেখের বাড়ির সামনে রাস্তার উপর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শেখ হেলাল উদ্দীনের নৌকা প্রতীকের মাইকিং চলছিল। এ সময় আড়ুয়াবর্ণী চরপাড়া গ্রামের আল আমিন খান, একই গ্রামের জাফর সরদারের ছেলে মাসুম সরদার, ঠান্ডা গাজীর ছেলে জসিম গাজী ও বিবেক কির্ত্তুনীয়া প্রচারণায় বাঁধা প্রদান করেন। পরে লোকজন বিবেক কির্ত্তুনীয়া ও আল আমিনকে আটক করে। বাকি দুইজন দৌড়ে পালিয়ে যায়।

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ইকরামুল হোসেন বলেন, ‘খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক আমরা ঘটনাস্থলে যাই। দুইজনকে মোবাইল কোর্টে জরিমানা করা হয়েছে।’

চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারি রিটার্নিং অফিসার মোঃ আসমত হোসেন জানান, এটা রাজনৈতিক কোন ঘটনা নয়। নির্বাচন বিধি লঙ্ঘনের দায়ে বিবেক কির্ত্তুনীয়া ও আল আমিন খানকে অর্থদন্ডাদেশ দেওয়া হয়। পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত