মোংলায় মানব পাচারের হোতা বকুলের বিরুদ্ধে  সংবাদ সম্মেলন 

মাসুদ রানা, মোংলা

আপডেট : ১১:৩১ পিএম, রোববার, ১২ মে ২০২৪ | ৮০

মোংলায় মানব পাচারের অভিযোগে দুপুর সাড়ে ১২ টায় মোংলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগীর জামাই ও মেয়ে। সংবাদ সম্মেলনে তার মেয়ে জামাই বলেন, আমার শাশুড়ি লাকি বেগম একজন সহজ সরল এবং লেখা পড়া না জানা ব্যক্তি। প্রায় এক বছর পূর্বে মানব পাচারকারী ফাতেমা আক্তার বকুলের সাথে আমার শাশুড়ির পরিচয় হয়। পরিচয় হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন রকম প্রলোভন ও নগদ টাকার লোভ দেখিয়ে তাকে সৌদি আরবে পাঠানোর কথা বলে তার কাছ থেকে কৌশলে ফাতেমা আক্তার বকুল ধাপে ধাপে আনুমানিক দুই লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। কিন্তু সৌদি আরবে না পাঠিয়ে তাকে ভারতে বিক্রি করে দেয়। পরবর্তীতে তার শাশুড়ির কোন খোঁজ না পেয়ে ফাতেমা আক্তার বকুলের নিকট শাশুড়ির কথা জানতে গেলে সে সর্বক্ষণ তাদের সাথে দুর্ব্যবহার,বিভিন্ন রকম তালবাহানা মূলক কথা বলা সহ মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করিবে বলিয়া হুমকি প্রদান করে। ফাতেমা আক্তার বকুল খাদিজা বেগমের নামে চেক প্রতারনার একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করাসহ এলাকার অনেক নিরীহ মানুষের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করিয়েছেন। বকুলের বিরুদ্বে মানব পাচারের মামলার তদন্ত আসলে বকুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিলে মামলার সাক্ষ্যির উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ৪ বছরের শিশুকে বকুল সহ তার লোকজন রক্তাক্ত জখম করে। স্থানীয়রা দ্রুত উদ্বার করে তাকে মোংলা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে মোংলা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করিলে মোংলা থানার ওসি কে এম আজিজুল ইসলাম বিষয়টি সঠিকভাবে তদন্ত করে ফাতেমা আক্তার বকুল এর দায়েরকৃত অভিযোগ মিথ্যা হওয়ায় মামলা নিতে আরো গভীর তদন্ত করার নির্দেশ প্রদান করেন।
ওসি কে এম আজিজুল ইসলাম মামলার আরো গভীর তদন্ত করার নির্দেশনার কারণে ফাতেমা আক্তার বকুল ক্ষিপ্ত হইয়া ওসি সহ তাদের মানসম্মান ক্ষুন্ন করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন দপ্তরে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন তারা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত