ফেসবুকে আপত্তিকর পোষ্ট ও মোরেলগঞ্জে হিন্দু বসতবাড়িতে হামলায় দুই মামলা; আটক ১৮

মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি

আপডেট : ০৮:৫৮ পিএম, মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল ২০২২ | ৪৩৬

ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট দেয়া বিষয়ে মোরেলগঞ্জে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলায় পোস্টদাতা আটক হয়েছে। এছাড়া, ফেইসবুকে ‘ধর্ম অবমাননার’ অভিযোগ তুলে হিন্দু বসতবাড়িতে হামলার ঘটনায় আরো একটি মামলা এবং এজাহারভুক্ত ১৭ জন আটক হয়েছে।

আমুরবুনিয়া গ্রামের রমনি বিশ্বাসের বসতঘর ভাংচুরের মামলায় এজাহার নামীয় ১৭ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হল- রেজাউল, আবু তাহের মিনা, সাইফুল, জাকির খান, আনোয়ার হোসেন, হারুন শেখ, সজীব, জাফর শেখ, কালাম শেখ, রকিবুল শিকদার, জামাল মিনা, রাজিব, জহির, নাজমুল শেখ, আবু বকর মিনা, মিনহাজ ও নাসির শেখ। তাদের জেল হাজতে পাঠিয়েছে বলে জানান জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক এসএম আশরাফুল আলম। এই মামলায় অজ্ঞাতনামা আসামির সংখ্যা ৮০-৯০ জন।

অপরদিকে, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আটক হয়েছে কৌশিক বিশ্বাস (২০)।

ঘটনার রাতেই (সোমবার) জেলা পুলিশ সুপার কেএম আরিফুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

মঙ্গলবার স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাড. আমিরুল আলম মিলন, উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড. শাহ্-ই-আলম বাচ্চু, ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক, ডিজিএফআই এর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল রুম্মান মাহমুদ, লেফটেন্যান্ট কমান্ডার (বিএন) এম কাউসারুল ইসলাম, জেলা ডিবি পুলিশ, র‌্যাব-৬ ও এনএসআই পৃথক দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে ভাংচুরকৃত রমনি বিশ্বাসের বসতঘরটি বসবাসের উপযোগী করতে মেরামতের কাজ শুরু করা হয়েছে। ভবিষ্যতে এখানে আঁধাপাকা ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হবে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম।

তিনি আরো জানান, সপ্তাহ খানেক আগে এক যুবক ভারতে অবস্থানকালে ফেইসবুকে ‘ইসলাম ধর্ম ও নবীকে কটূক্তি করে’ একটি পোস্ট দেন। সম্প্রতি ওই যুবক দেশে ফিরলে সেই ফেইসবুক পোস্ট নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে আলোচনা শুরু হয়। বিষয়টি মীমাংসার জন্য সোমবার সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর মালেক গাজী ও স্থানীয় লোকজন বৈঠক করেন। ওই বৈঠককে সেই যুবক ফেইসবুকে তার পোস্টের জন্য ক্ষমা চাইলে মিটমাট হয়ে যায়।


প্রসঙ্গত, সোমবার বিকেল ৫টার দিকে আমরবুনিয়া জামে মসজিদ মাঠে ওই যুবককে ডেকে বিচার করা হয়। সন্ধ্যার পরে ঘটনাটি জানাজানি হয়ে গেলে আমরবুনিয়া, জিউধরা, গুলিশাখালী ও মোংলার কচুবুনিয়া গ্রাম থেকে শত শত লোক জড়ো হয়ে মিছিল সহকারে বসতবাড়িতে হামলা করে। এ ঘটনার পর থেকে ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করে রাখা হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত